Bengali govt jobs   »   study material   »   The Sixteen Mahajanapadas List in Bengali

The Sixteen Mahajanapadas List in Bengali, Capitals, Location, and Kings

The Sixteen Mahajanapadas

মহাজনপদ (সংস্কৃত: মহারাজ্য, মহা থেকে “মহান”, এবং জনপদ “একটি লোকের পদস্থল”) ছিল ষোলটি রাজ্য বা অলিগ্যার্কিক প্রজাতন্ত্র যা খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ থেকে চতুর্থ শতাব্দীর মধ্যে দ্বিতীয় নগরায়নের সময়কালে প্রাচীন ভারতে বিদ্যমান ছিল।

খ্রিস্টপূর্ব 6ষ্ঠ-5ম শতাব্দীকে প্রারম্ভিক ভারতীয় ইতিহাসে একটি প্রধান বাঁক হিসাবে বিবেচনা করা হয়; এই সময়কালে সিন্ধু উপত্যকা সভ্যতার অবসানের পর ভারতের প্রথম বড় শহরগুলির উদ্ভব ঘটে। এটি শ্রমণ আন্দোলনের (বৌদ্ধ ও জৈন ধর্ম সহ) উত্থানের সময়ও ছিল, যা বৈদিক যুগের ধর্মীয় গোঁড়ামিকে চ্যালেঞ্জ করেছিল।

ষোড়শ মহাজনপদগুলি হল-

  • কাশি
  • কোসল
  • অঙ্গ
  • মগধ
  • বৃজি বা বজ্জি
  • মাল্লা
  • চেদী
  • বৎস
  • কুরু
  • পাঁচলা
  • অস্মক
  • মৎস্য
  • সুরসেন
  • অবন্তী
  • গান্ধার
  • কম্বোজ

মহাজনপদগুলির মধ্যে দুটি সম্ভবত গণসংঘ (অলিগারিক প্রজাতন্ত্র) এবং অন্যদের রাজতন্ত্রের রূপ ছিল। আঙ্গুত্তারা নিকায়ার মতো প্রাচীন বৌদ্ধ গ্রন্থে ঘন ঘন ষোলটি মহান রাজ্য ও প্রজাতন্ত্রের উল্লেখ পাওয়া যায় যেগুলি উত্তর-পশ্চিমে গান্ধার থেকে ভারতীয় উপমহাদেশের পূর্ব অংশের আঙ্গা পর্যন্ত বিস্তৃত একটি বলয়ে গড়ে উঠেছিল এবং বিকাশ লাভ করেছিল। তারা ট্রান্স-বিন্ধ্য অঞ্চলের কিছু অংশ অন্তর্ভুক্ত করে এবং ভারতে বৌদ্ধধর্মের উত্থানের আগে সবই বিকশিত হয়েছিল।

  • খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠশতকে উত্তর ভারতে যে ষোলটি বড় বড় জনপদ গড়ে উঠে তাদেরকে ষোড়শ মহাজনপদ বলে।
  • আমরা এই মহাজনপদ সম্পর্কে জানতে পারি বৌদ্ধ গ্রন্থ অংগুত্তরনিকে ও মহাবস্তু এবং জৈন ধর্ম গ্রন্থ ভগবতিসূত্র থেকে। এছাড়াও পাণিণির অস্ট্যাধয়ী ও হিন্দু গ্রন্থ পুরাণ থেকেও আমরা এই মহাজনপদ সম্পর্কে জানতে পারি।
  • এই মহাজনপদ গুলির মধ্যে মগধ,কোশল ,বৎস এবং অবন্তি ছিল খুবই শক্তিশালী।
  • এই মহাজনপদ গুলির মধ্যে মধ্যে একমাত্র অস্মক ছিল দক্ষিণ ভারতে অবস্থিত।
  • এই মহাজনপদ গুলির মধ্যে মধ্যে বৃজি ও মল্ল ছিল প্রজাতান্ত্রিক।
  • গান্ধার ও কম্বোজ মহাজনপদ দুটি বর্তমানে পাকিস্তানে অবস্থিত। বোঘাজকোই লিপি থেকে জানা যায় এই মহাজনপদ দুটি ছিল পারসিকদের দখলে।

বর্তমানে এই মহাজনপদ গুলির অবস্থান গুলির অবস্থান হল:

কাশি: প্রথম পর্বে সর্বাধিক শক্তিশালী ছিল কাশি। বরুনা ও অসি নদী দ্বারা বেষ্টিত ছিল এই মহাজনপদটি। এর রাজধানী ছিল বারাণসী। বিনয় পিটক গ্রন্থ থেকে জানা যায় যে এটি ছিল সমগ্র ভারতবর্ষ প্রভু।

কোশল: এই মহাজনপদটিকে বর্তমানে অযোধ্যার সাথে তুলনা করা হয়। এটি সরযূ নদীর তীরে অবস্থিত ছিল। অযোধ্যা ,সকেত ও শ্রাবন্তী নগর ছিল কোশলের অন্তর্গত।কৌশল রাজ প্রসেনজিৎ ছিলেন গৌতম বুদ্ধের সমসাময়িক।

অঙ্গ: বর্তমান বিহারের পূর্বাংশে ভাগলপুরের সন্নিহিত অঞ্চল
ছিল অঙ্গের অবস্থান। এর রাজধানী ছিল চম্পা (পূর্ব নাম ছিল মালিনী) এটি প্রাচীন কালের অন্যতম সমৃদ্ধ নগর।

মগধ : দক্ষিণ বিহারের পাটনা ও গয়া জেলা নিয়ে গড়ে উঠেছিল মগধ। মগধ ছিল চম্প, শোন ও গঙ্গা নদী দ্বারা বেষ্টিত। অথর্ব বেদে সর্বপ্রথম মগধের উল্লেখ পাওয়া যায়। প্রাথমিক পর্বে এর রাজধানী ছিল গিরিব্রজ বা রাজগৃহ এবং পরবর্তী কালে পাটলীপুত্র -ই এর রাজধানীতে পরিণত হয়।

বৃজি বা বজ্জি: গঙ্গা নদীর উত্তরে বর্তমানে উত্তর বিহারের মজঃফরপুরের নিকটবর্তী ছিল ব্রিজির অবস্থান। আটটি উপজাতি গোষ্ঠীর সমন্বয়ে এটি গঠিত ছিল। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য উপজাতি গুলি হল -বজ্জি ,বিদেহ ,লিচ্ছবি ,শাক্য ইত্যাদি । এর রাজধানি ছিল বৈশালী । অজাতশত্রুর আমলে এটি মগধের অন্তর্গত হয়।

মল্ল: বর্তমানে এটি উত্তরপ্রদেশে অবস্থিত। এটি দুই ভাগে বিভক্ত ছিল। এর একটি অংশ হল গোরখপুর জেলার কুশীনারা এবং অন্যটি হল পাবা নগরী।

চেদী: ভারতের প্রাচীনতম উপজাতির মধ্যে অন্যতম হল চেদী। বর্তমানে বুন্দেলখন্ডের নিকট অবস্থিত। এর রাজধানী ছিল-সুত্তিমতী।

বৎস : বর্তমানে এটি এলাহাবাদের নিকট অবস্থিত। এর রাজধানী ছিল-কৌশাম্বী।

কুরু : বর্তমানে দিল্লী ও তার সংলগ্ন এলাকায় অবস্থিত ছিল কুরু। এর রাজধানী ছিল হস্তিনাপুর। এটি প্রাচীন ভারতের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ শহর ছিল।

পাঞ্চাল: বর্তমানে উত্তরপ্রদেশে অবস্থিত ছিল। এটি দুটি অংশে বিভক্ত ছিল।উত্তরের রাজধানী ছিল -অহিছত্র এবং দক্ষিণের রাজধানী ছিল-কাম্বিল্য। পরবর্তীকালে কনৌজ এর গুরুত্বপূর্ণ শহর হয়।

মৎস: বর্তমানে রাজস্থানের জয়পুর ,ভরতপুর ও আলওয়ার নিয়ে গঠিত। এর রাজধানী ছিল বিরাট-নগর।

সুরসেন: বর্তমানে মথুরা অঞ্চলে অবস্থিত। এর রাজধানী ছিল মথুরা।

অস্মক: এর সঠিক অবস্থান জানা যায় না। তবে মনে করা হয় এটি দক্ষিণ ভারতের মহারাষ্ট্রে অবস্থিত ছিল। এর রাজধানী ছিল পোতলা বা পোতালী।

অবন্তী: মধ্যপ্রদেশের পশ্চিমাংশে অবস্থিত ছিল। এর রাজধানী ছিল উজ্জয়িনী।

বর্তমানে পাকিস্তানের পেশওয়ার ও রাওয়ালপিন্ডী অঞ্চলে অবস্থিত। এর রাজধানী ছিল তক্ষশীলা। পারস্য শাসক দারিয়াসের (520-18খ্রি:পূ:)বেহিস্তান শিলালেখ থেকে জানা যায় এটি পারস্যদের দখলে ছিল।

কম্বোজ : বর্তমানে পাকিস্তানের হাজারা জেলার রাজৌরিতে অবস্থিত এর রাজধানী ছিল রাজপুর।

Quick Links
Indus Valley Civilization Buddhism in Bengali
Jainism in Bengali Vedas In Bengali
Mauryan Dynasty in Bengali
The Sixteen Mahajanapadas in Bengali 

 

ADDA247 Bengali Homepage Click Here
ADDA247 Bengali Study Material Click Here

The Sixteen Mahajanapadas List in Bengali, Read from here_30.1

 

Adda247 ইউটিউব চ্যানেল – Adda247 YouTube Channel

Adda247 টেলিগ্রাম চ্যানেল – Adda247 Telegram Channel

Sharing is caring!

FAQs

What are the 16 Mahajanapadas of ancient India?

There were sixteen such Mahajanapadas: Kashi, Kosala, Anga, Magadha, Bajji, Malla, Chedi, Vatsa, Kuru, Panchal, Maccha, Surasena, Asaka, Avanti, Gandhara and Kamboja.

Why is it important to read about the 16 Mahajanapadas of ancient India?

The Mahajanapadas were formed in the sixth century BC. The most prominent feature of the Mahajanapadas is its state formation. With the rise of the Mahajanapadas, the political history of North India became clearer. 16 Mahajanapadas had both republics and monarchies and it is important to know about them for all government jobs exams.

Who created the 16 Mahajanapadas?

"Most Mahajanapadas were founded by merging several janapadas. One such example is Kosala which included the janapadas of Shakya and Kashi. Several Buddhist texts repeatedly mention 16 Mahajanapadas and their main settlements, which existed during the Buddha's lifetime (6th century).